উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

একটি অসুস্থ খেলা: অভিযোগের পর গুগল প্লে থেকে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে “বোম্ব গাজা” গেমসটি

Bomb Gaza - a game on Google Play was removed after complaints

অভিযোগের পর বোম্ব গাজা গেমসটি গুগল অ্যাপ স্টোর থেকে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। 

একটি অ্যান্ড্রয়েড গেমস, যার মাধ্যমে খেলোয়াড়রা গাজায় বিমান হামলা চালাতে পারবেন, তা প্রচণ্ড ক্ষুব্দতা এবং প্রখর সমালোচনার জন্ম দিয়েছে। “গাজায় বোমা” নামের গেমসটি বর্তমানে গুগুল প্লে অ্যাপ স্টোর থেকে থেকে প্রত্যাহার করে নেওয়া হয়েছে। গেমসটিকে গত ২৯ জুলাই তারিখে মুক্তি দেওয়া হয়েছিল।

অনলাইন ব্যবহারকারীরা একে “বিরক্তিকর”, লজ্জাজনক” এবং সোজা ভাষায় “অসুস্থ” হিসাবে বর্ণনা করেছেন – বিশেষ করে, গাজায় ইসরাইলের আক্রমণের ভয়াবহ চিত্র যখন প্রকাশ পেতে শুরু করেছে, যেখানে ইসরাইল তাঁদের প্রটেকটিভ এজের স্থল অভিযান অব্যাহত রেখেছে। এই ন্যাক্কারজনক হামলার আজ ৩০ তম দিন।  এখনও পর্যন্ত এই হামলায় ১,৮৬৫ জন ফিলিস্তিনি মারা গেছেন এবং ৯,৬৫০ জনেরও অধিক আহত হয়েছেন (সুত্র: ফিলিস্তিনের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র ডাঃ আশরাফ আলকেদ্রার ফেসবুক পাতা)

সমস্ত দিন, নেট নাগরিকরা এই অশোভন খেলা সরানোর জন্য চাপ দিয়েছেন।

অকুপাইড ফিলিস্তিনি খেলাটিকে বর্জন করতে তার ২৯,৯০০ অনুসারীদের আহ্বান জানিয়েছে: 

গুগল প্লেতে ডাউনলোডের জন্য আরেকটি অসুস্থ গেমস। এটিকে বর্জন করুন ও এটি সরিয়ে নেওয়ার জন্য গুগলের কাছে আবেদন জানান! 

আয়েশা রিপোর্ট করতে বলেছেন:

যাদের একটি অ্যান্ড্রয়েড ফোন আছে, দয়া করে সবাই রিপোর্ট করুন!

এবং সাংবাদিক রানিয়া খালেক তার ৪৫,৮০০ অনুগামীদের বলেছেন:

গুগল অ্যাপ স্টোরে ডাউনলোডর জন্য গেমস: গাজায় বোমা, হামাস ও গাজায় হামলার অংশ: কোড রেড http://t.co/yeztAMn85P গণহত্যার একটি খেলা!

খেলাটি ইতিমধ্যে সরিয়ে ফেলা হয়েছে।

গাজা থেকে ফিলিস্তিনি ওমর ঘারিয়েব এই ধরণের অন্যান্য গেমস সম্পর্কে সতর্ক থাকার জন্য তার পাঠকদের আহ্বান জানিয়েছেন:

#বোম্ব গাজা সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। এই ধরণের অন্যান্য গেমস সম্পর্কে সতর্ক থাকুন। @অ্যান্ড্রয়েড, @অ্যাপস্টোর, নকিয়া ওয়ার্ল্ড এবং মাইক্রোসফট স্টোরকেও সরিয়ে নিতে হবে। 

ইসরাইল গত ৮ জুলাই তারিখ থেকে ৪০ কিলোমিটার দীর্ঘ উপকূলীয় স্ট্রিপে ব্যাপক আক্রমণ চালিয়ে আসছে, যার ফলে ৬,৭৮০ জনেরও অধিক মানুষ আহত হয়েছে। স্কুল, খেলার মাঠ, হাসপাতাল, আশ্রয়কেন্দ্র এবং শরণার্থী শিবিরে ইসরাইল বোমাবর্ষণ করেছে। গাজায় নিহত চার জনের মধ্যে তিন জনই বেসামরিক নাগরিক। ২৮ জুলাই তারিখে ইসরাইল গাজার একমাত্র পাওয়ায় প্ল্যান্টটি আক্রমণ করে, যার ফলে ১.৮ মিলিয়ন মানুষের ঘনবসতিপূর্ণ স্ট্রিপটি অন্ধকারে নিমজ্জিত হয়। যেহেতু ইসরাইল আবাসিক এলাকাগুলোতে বোমা ফেলেছে, তাই হাজার হাজার মানুষ গৃহহীন হয়েছে এবং অস্থায়ী আশ্রয়স্থলে আশ্রয় নিতে বাধ্য হয়েছে।

গত ছয় বছরের মধ্যে গাজায় এটি ইসরাইলের তৃতীয় সামরিক হামলা। ইসরায়েল গাজা এবং পশ্চিম তীরের ফিলিস্তিনি অঞ্চলে ব্যাপক নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে রেখেছে, তাই অধিকাংশ বিশ্ববাসী এবং জাতিসংঘ স্থানটি ইস্রায়েল দ্বারা “দখল” বলে বিবেচনা করে।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .