উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

ইরানের সংবাদপত্রগুলো সাংবাদিকদের গণ গ্রেপ্তারের ব্যাপারে নিশ্চুপ

প্রখ্যাত ই রানী কার্টুনিস্ট মানানেয়াস্তানি’র শিল্পকর্ম। সুত্রঃ রেডিওযামানেহ

বিশ্বের সাংবাদিকদের নেতৃস্থানীয় কারাপাল আবার আঘাত হেনেছে।

সপ্তাহব্যাপী শাসকগোষ্ঠীর প্রতিনিধিদের দ্বারা অন্তত ১২ জন ইরানি সাংবাদিক গ্রেপ্তার হয়েছেন। গত সোমবার ২৮ জানুয়ারি, ২০১৩  তারিখে রিপোর্টার্স উইদাউট বর্ডারস (আর এস এফ) সাংবাদিকদের গণ গ্রেপ্তারের ব্যাপারে একটি বিবৃতি প্রকাশ করেছে। আরএসএফ এর তথ্যানুযায়ী, তেহরানে সংবাদ মাধ্যমের উপর কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। সাধারণ পোশাকধারী গোয়েন্দা মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা চার দৈনিক সংবাদপত্র এতেমাদ, আরমান, শারঘ এবং বাহার এবং সাপ্তাহিক আসেমানান্দের প্রধান কার্যালয়ে অনুসন্ধান চালিয়েছে। তাঁরা কোন রকম ব্যাখ্যা ছাড়াই অন্তত ১০ জন সাংবাদিককে গ্রেপ্তার করেছে।

দ্যা গার্ডিয়ানের রিপোর্টের সাথে অনেকেই একমত হয়েছেন যে, “গ্রেপ্তারটি সংবাদ মাধ্যমের প্রতি কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণের তীব্রতা বৃদ্ধির সংকেত। এটির মাধ্যমে এ ব্যাপারটিই প্রতিফলিত হয় যে শাসকগোষ্ঠীর সাথে ভিন্ন মত পোষণকারী মাধ্যমের সাথে যারা কাজ করেন অথবা শত্রু হিসেবে বিবেচিত যেসব নির্গম-পথ রয়েছে তাদেরকে ইরান একেবারেই বরদাস্ত করে না।”

কারাবন্দী সাংবাদিকদের একতা প্রদর্শন এবং তাঁদের মুক্ত করতে সামনে এগিয়ে যাওয়ার বেশ কিছু ছবি কয়েকজন ইরানি নেট নাগরিক ও সাংবাদিক শেয়ার করেছেনঃ

source:http://masihalinejad.com/wp-content/uploads/2013/01/536937_10151243473741608_867996887_n.jpg

মাসিহ আলিনেজাদ নামের একজন ইরানি সাংবাদিক তাঁর ব্লগে লিখেছেন [ফার্সী], সাম্প্রতিক এই গণগ্রেপ্তারটি আমরা ইরানি সাংবাদিকদের ভয় দেখানোর জন্য “নির্বাচন-পূর্ব কৌশল” হিসেবে ধরে নিতে পারি। আগামী জুন, ২০১৩ তারিখে প্রেসিডেন্ট নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে।

তিনি লিখেছেনঃ

…. সাংবাদিকদের গ্রেপ্তারের এবং তাঁদের বাড়িতে হামলার খবরটি তাঁদের নিজস্ব সংবাদপত্রেও প্রকাশিত হয়নি… শাসকগোষ্ঠী, যারা তাঁদের নিজেদের প্রহসনের নির্বাচন নিয়ে শংকিত তাঁদের কাছে সাংবাদিকরা সবচেয়ে সহজ লক্ষ্য বস্তু [ফার্সীতে “সবচেয়ে খর্বাকৃতির দেয়াল”] … এতে বোঝা যায় ইরানে যেকোন ঘটনা ঘটার আগে সাংবাদিকরা গ্রেপ্তার হন।

অসংখ্য নেট নাগরিক গল্পটি সম্পর্কে টুইট করেছেন এবং বিভিন্ন মাধ্যম ও সংস্থার সাথে লিংকগুলো শেয়ার করেছেন।

লালেহ টুইট করেছেনঃ

ডমিনিক রোডিয়ার টুইট করেছেন :

পার্সিয়ান বানু টুইট করেছেনঃ 

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .