উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

ক্যারিবিয়াঃ ঘূর্ণিঝড় “ওমর” এর সৃষ্ট বৃষ্টি থেমেছে


“লুকিং টুওয়ার্ডস প্রাইভেট মাইকেল” – স্টিভ ম্যাক এর ছবি অনুমতি নিয়ে ব্যবহৃত। স্টিভ এর ফ্লিকর ফোটস্ট্রিম দেখুন।

দাপ্তরিক হিসাব অনুযায়ী ক্যারিবিয়াতে এখন আর্দ্র ঋতু বিরাজ করলেও এই অঞ্চলের বেশ কিছু ভূখন্ড সচারচার সিক্ততার চেয়েও বেশী আর্দ্রতার সাথে যুঝছে – গ্রীষ্মমন্ডলীয় ঘূর্ণিঝড় ওমর এর কারণে মুষলধারে বর্ষিত বৃষ্টিকে ধন্যবাদ দিতেই হয় যা অনতিবিলম্বে ক্যাটাগরী-৩ হ্যারিকেনে পরিণত হয়ে উত্তর ক্যারিবিয়ার ভিতর থেকে প্রবলভাবে অগ্রসর হবার পথ তৈরী করে নেয়।

কুয়াডারনো ল্যাটিনোআমেরিকানো বলেছেন ওমর পুরো অঞ্চলটার ঝাঁপিয়ে গেছেঃ

ক্যাটাগরী-৩ হ্যারিকেন হিসাবে দ্বীপগুলোর দিকে ধেয়ে আসার কিছু পূর্বে, ওমরের সর্বোচ্চ বাতাসের গতিবিধি বেড়ে দাড়িয়েছিল ঘন্টায় ১২৫ মাইল, কিন্তু দ্বীপ থেকে দ্রুত সরে যাবার পরে তা হয় ১১৫ মাইল।

“ওয়েবস ব্রেক অন দ্যা রোসিউ বেফ্রন্ট” – স্টিভ ম্যাক এর ছবি অনুমতি নিয়ে ব্যবহৃত। স্টিভ এর ফ্লিকর ফোটস্ট্রিম দেখুন।

ইউএস ভার্জিন আইল্যান্ড থেকে ব্লগিং করে নিউজ অব সেন্ট জন জানিয়েছিলেন ধেয়ে আসা ঘূর্ণিঝড়ের বিষয়ে তারা বেশ সতর্ক ছিলেন; তবে কিছু পরেই এটা অতিবাহিত হয়ে গেলে জানান সবকিছু স্বাভাবিক হয়ে আসার কথাঃ

ভার্জিন দ্বীপপুঞ্জে চমৎকার আবহাওয়া ফিরে এসেছে; পুয়ার্তো রিকোর ওয়েদার চ্যানেল মেট্রোলজিস্ট এর আজকের সকালের একটা প্রতিবেদন বিচার করে এই তথ্য মেলে। প্রতিবেদনে বলা হয় পুয়ার্তো রিকোতে .২৫ ইঞ্চি, টমাসে আড়াই, সেন্ট ক্রোইক্সে ৫ এবং সেন্ট জন প্রায় ৩ অথবা ৪ ইঞ্চির মত বৃষ্টি হয়েছে।

ডিসকভার টিএনটি ব্লগের ভাস্য অনুযায়ী ভার্জিন আয়ল্যান্ডে খুবই নগন্য ঝঞ্ছ্বা স্বত্বেও ওমরকে খুব গুরুত্ব সহকারে দেখা হচ্ছিল, বেশ কিছু ফ্লাইটও বাতিল করা হয়েছেঃ

হ্যারিকেনের কারণে ভয়াবহ আবহাওয়া বিরাজ করার আশঙ্কায় এলআইএটি পরামর্শ দিয়েছিল কিছু ফ্লাইট বাতিল করতে। নভেম্বরের ৩০ তারিখ শেষ হতে যাওয়া এ বছরের আটলান্টিক হ্যারিকেন সিজনের ১৫ তম হ্যারিকেনের নাম ওমর।

গুয়াডেলৌপি, সেন্ট মারটেন, সাবা, সেন্ট ইউস্টেটিয়াস, সেন্ট বার্থেলেমি ইত্যাদি দ্বীপপুঞ্জে ঘূর্ণিঝড় সতর্কসংকেত দেয়া হয়েছে। সৌভাগ্যবশতঃ ঘূর্ণিঝড় অভ্যস্ত হাইতি, কিউবা এবং জ্যামাইকা এবার বাদ পড়েছে।

তবে ওমরের প্রভাব অনুভূত হয়েছে সেন্ট ভিনসেন্ট এবং গ্রেনাডিনসেও। প্রায় অবিশ্বাস্যের ভঙ্গিতে এবেনি লিখেছেন ঘূর্ণিঝড়ের ক্ষতি সম্পর্কেঃ

গতরাতে কোন বৃষ্টি হয় নি, এমন কোন বৃষ্টি যা গ্রাহ্য করা যায়। তারপরেও আমরা আজকে এই খবর শুনে জেগে উঠলাম যে উপকূলীয় অঞ্চল ও শহরে সমুদ্র ব্যাপক তান্ডব হেনেছে। আপনি কি বিশ্বাস করবেন ওমরে আমরা আন্দোলিত হয়েছি? কিঙ্গস্টন ফেরার পথে বন্দর ও গ্রেনাদিনসের দিকে তাকিয়ে দেখলাম এখনও ঠেউগুলো রুদ্রমুর্তি ধারণ করে আছে এবং বুঝতে পারলাম সমুদ্র এখনও শান্ত হয়নি।

সে আরো লিখেছেঃ

যার ফলে মনে হয় প্রাকৃতিক দুর্যোগের সম্মুখে আসলেই আমরা কি ভীষণ ঝুঁকিপূর্ণ জীবনযাপন করি। চোখের পলকে আমাদের চারপাশের সবকিছু দৃশ্যতঃ ধ্বসে পড়তে পারে এবং তা থামানোর মত শক্তি আমাদের নেই। জননীরূপী প্রকৃতি যখন তার কোমল রূপ অদৃশ্য করে একজন ভয়াল ডাইনীতে পরিণত হয় তখন তার নাগাল এড়ানোর জন্য আমাদের সতর্ক হতে হয়। আমার মনে হয় গত রাতের ঘটনা আমাদের একটা সতর্ক সংকত দিয়েছে। দুর্যোগ ব্যবস্থাপনায় আমাদের নির্জিব আচরণ ছুড়ে ফেলতে হবে।


“টেইল এন্ড অব হ্যারিকেন ওম, বে ফ্রন্ট ডোমিনিকা” ট্রপিক্যালীটাইড এর ছবি অনুমতি নিয়ে ব্যবহৃত। তার ফ্লিকর ফটোস্ট্রিম দেখুন।

ডোমিনিকা উইকলী বলেছেন “ন্যাচার আইল”ও ওমরের একটু স্বাদ উপভোগ করেছেঃ

বিগত ১৬ ঘন্টায় সাগরের উঁচু জলোচ্ছ্বাসের কারণে ডোমিনিকার ওয়েস্ট কোস্টের গ্রামগুলোর উপকূলে ব্যাপক ধ্বংসযজ্ঞের অসংখ্য প্রতিবেদন এসেছে (যেমন পয়েনটি মিশেল, নিউটাউন, ডাবল্যাংক, পোর্টসমাউথ ইত্যাদি)।


“পিট মাইকেল রোড আফটার হ্যারিকেন ওমর” – স্টিভ ম্যাক এর ছবি অনুমতি নিয়ে ব্যবহার করা হয়েছে। তার ফ্লিকর ফটোস্ট্রিম দেখুন।

অলৌকিকভাবে ওমর তার ২০০৮ হ্যারিকেন সিজনের উত্তরসূরীদের চেয়ে কম ধ্বংষযজ্ঞ চালিয়েছে বলে মনে হয়। তার কামড়ের চেয়ে চিল্লাচিল্লি বেশী ছিল; উত্তর-পূর্ব ক্যারিবিয়াকে হুমকি দেবার পরপরই ওমর গ্রীষ্মকালীন ঝড়ের স্বাভাবিক মাত্রায় দুর্বল হয়ে পড়ে

1 টি মন্তব্য

  • Cassie

    It’s a pleasure to find somneoe who can think so clearly

আলোচনায় যোগ দিন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .