উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

গল্পগুলো from আফ্রিকা

ইথিওপিয়ায় মানবাধিকার বিষয়ে লিখতে গিয়ে কিভাবে ব্লগাররা কারাগারে গিয়েছেন

ইথিওপিয়া ব্লগাররা কারাগারে ১০০ দিন অতিবাহিত করার পর মেলডী সানবার্গ ইথিওপিয়াতে মত প্রকাশের স্বাধীনতা বিষয়ে বিশ্লেষণ করেছেনঃ

Ethiopia is with its almost 94 million population the second most populated country in Africa. Nevertheless, it does not according to an interview with Endalkhachew Chala by Global Voices, have an independent daily newspaper or independent media. There was a need of an alternative voice and the Zone 9:ers therefore began blogging and using social media to write on subjects related to human rights. The name of the group, Zone 9, refers to the zones of the notorious Ethiopian Kality prison, where political prisoners and journalists are being held. The prison has eight zones, but the ninth “zone” refers to the rest of Ethiopia. Even if being outside of the prison walls – you are never truly free; any freethinking individual may be arrested. The bloggers wanted to be the voice of this ninth zone.

 In the interview, Endalkachew says that the group had campaigns about respecting the constitution, stopping censorship and respecting the right to demonstrate. The group also visited political prisoners, such as journalists Eskinder Nega and Reeyot Alemu. They wanted to bring the publics’ attention to them by using social media.

ইথিওপিয়ার জনসংখ্যা প্রায় ৯৪ মিলিয়ন যা আফ্রিকার দ্বিতীয় বৃহত্তম। যদিও গ্লোবাল ভয়েসেসকে দেওয়া এন্ডাল্কাচেউ চালা'র সাক্ষাৎকার অনুযায়ী দেশটিতে একটি স্বাধীন দৈনিক সংবাদপত্র বা স্বাধীন মিডিয়া নেই। যেকারণে একটী বিকল্প কন্ঠের প্রয়োজন ছিল এবং এই প্রয়োজন থেকেই ‘জোন ৯’ এর সদস্যরা ব্লগিং করা শুরু করে। তারা সামাজিক মাধ্যমকে ব্যবহার করে মানবাধিকার বিষয়ে লেখালেখি করার জন্য। গ্রুপটির নাম জোন ৯, যা আসলে ইথিওপিয়ার কুখ্যাত ক্যালিটি কারাগারের একটি জোন, যেখানে রাজনৈতিক বন্দীদের এবং সাংবাদিকদের আটকে রাখা হয়েছে। কারাগারটির আটটি জোন রয়েছে, কিন্তু ‘জোন ৯’ বাকি ইথিওপিয়ার প্রতিনিধিত্ব করে। যদিও আপনি জেলের বাইরে, আপনি সত্যিকার অর্থে স্বাধীন নন, যেকোন মুক্তচিন্তাকারী যেকোন সময় গ্রেফতার হতে পারে। ব্লগাররা চেয়েছিল জোন ৯ এর কন্ঠ হতে।

সাক্ষাৎকারে এন্ডাল্কাচেউ বলেন, গ্রুপটির  সংবিধানকে সম্মান দেখানো, সেন্সরশিপ বন্ধ করা এবং সমাবেশ করার অধিকারকে সম্মান জানানোর জন্য প্রচারণা ছিল। গ্রুপটি রাজনৈতিক কারাবন্দীদের সাথে নিয়মিত দেখা করতো, যাদের মধ্যে ছিল সাংবাদিক ইস্কিন্দার নিগা এবং রিয়োট আলেমু। তারা সামাজিক মিডিয়া ব্যবহার করে তাদের জন্য জনগণের মনোযোগ আনতে চেয়েছিল।

বিশ্বের সবচেয়ে ১০টি দূর্নীতিগ্রস্ত রাষ্ট্রের মধ্যে ৫টি রাষ্ট্র আরব

ট্র্যান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনালের সদ্য প্রকাশিত বার্ষিক দূর্নীতি সূচকে বিশ্বের সেরা ১০টি দুর্নীতিগ্রস্ত রাষ্ট্রের মধ্যে আরবের ৫টি রাষ্ট্রের নাম উঠে এসেছে।

মিশরীয় নাগরিক আমরো আলী তার প্রতিক্রিয়া প্রদর্শন করছে:

সিরিয়া, ইরাক, লিবিয়া, সোমালিয়া, সুদানকে অভিনন্দন- সবচেয়ে দুর্নীতিগ্রস্ত রাষ্ট্রের তালিকার শীর্ষে ৫টি আরব রাষ্ট্র। মিশরের এই তালিকায় নাম লেখানো দরকার।

এবং সুদানের নাগরিক উসমাহ মোহামেদ মন্তব্য করেছে:

ইরাক দখল করা হয়েছে। সিরিয়া এবং সোমালিয়ায় এখন গৃহযুদ্ধ চলছে। লিবিয়া মাত্র তার ৪১ বছরের স্বৈরাচার শাসকের বিরুদ্ধে বিদ্রোহ করেছে যা দেশটিকে ভুল পথে পরিচালনা করেছিল। সুদান?

বতসোয়ানাঃ “বুশম্যানস সিক্রেটস” চুরি

মাইওয়েকু সান “বুশম্যানস সিক্রেটস” চুরি নিয়ে একটি প্রামাণ্যচিত্র নিয়ে প্রতিবেদন করেছে:

এই প্রামাণ্যচিত্রটি একটি ব্যথিত ছবি দেখিয়েছে যে কিভাবে একটি কোম্পানি, ইউনিলিভার যারা নিজেদেরকে “বিশ্বের সবচেয়ে বড় আইসক্রিম উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান হিসেবে” প্রচার করে, তারা এখন দুর্ভাগ্যক্রমে বুশম্যান সিক্রেটকে বাজারে একটি হালকা দ্রব্য হিসেবে প্রচার করছে।

উপকূলবর্তী এলাকায় তেল চুইয়ে পড়ার ঘটনা দক্ষিণ পশ্চিম গ্যাবনের সংরক্ষিত লেগুনের জন্য হুমকির সৃষ্টি করছে

১৪ ডিসেম্বর ২০১২-এ, দক্ষিণ পশ্চিম গ্যাবনের উপর তোলা গুগল আর্থের একটি ছবিতে দেখা যাচ্ছে যে সেখানে উপকূলবর্তী এলাকায় তেল চুইয়ে পড়ার ঘটনায় ফ্রেনান ভাজ লেগুন দূষিত হয়ে পড়ছে, ছবিটি এনজিও এইচটুও গ্যাবনের মাধ্যমে পাওয়া।

এনজিও এইচটুও গ্যাবন, দেশটির উপকূলবর্তী এলাকায় এক তেল চুইয়ে পড়ার সংবাদ [ফরাসী ভাষায়] প্রদান করেছে যা ফ্রেনান ভাজ লেগুন নামক এলাকা দূষিত করছে। তেল কোম্পানী পেরেনকো পরে তেল চুইয়ে পড়ার এই ঘটনা নিশ্চিত করে কিন্তু তারা দাবি করে যে চুইয়ে পড়া তেল লেগুন পর্যন্ত পৌছাচ্ছে না [ফরাসী ভাষায়]।

মাদাগাস্কারের এক তরুণী গৃহকর্মীকে লেবাননে ধর্ষণ এবং অত্যাচার করা হয়েছে

১৪ বছরের মারিকে তার খালা জোর করে নিজের সাথে লেবাননে নিয়ে যায় এবং এক গৃহকর্মীতে পরিণত করে। একবার সেখানে যাবার পর, তার মালিক তাকে নিয়মিত ধর্ষণ করত। যখন সে উপলব্ধি করে যে সে গর্ভবতী, তখন উক্ত মালিক তাকে বাড়ি থেকে বের করে দেয়। নিঃসঙ্গ অবস্থায় সন্তান জন্মদানের পর সে উক্ত শিশুটিকে একটি ভবনের আটতলা থেকে ফেলে দেয়।

আসানাতো ব্লাদে, মাদাগাস্কারের সামাজিক সমস্যা থেকে বাঁচতে লেবাননে অভিবাসন গ্রহণ করে সে দেশের এক তরুণীর দুর্দশার ঘটনার অনুসন্ধান করছে [ফরাসী ভাষায়]। রিপোর্টে অত্যাচার এবং শারীরিক নির্যাতনের অন্যান্য সাক্ষ্য সংগ্রহ করা হয়েছে, যেখানে দেখা যাচ্ছে তার কাজের পরিবেশ ছিল অত্যন্ত জঘন্য এবং তাকে পশুর সাথে মিলিত হতে বাধ্য করা হত।

আশি বছরের এক প্রতীক্ষার অবসান: নাইজার-এর প্রথম রেলস্টেশন

৭ এপ্রিলে, নাইজারের রাজধানী নিয়ামে এই প্রথম এক রেলস্টেশনের উদ্বোধন হল [ফরাসী ভাষায়]। এখন থেকে ৮০ বছর আগে দেশটির তৎকালীন কর্তৃপক্ষ সেখানে একটি রেলস্টেশন নির্মাণের প্রকল্প গ্রহণ করে, কিন্তু মাঝখানের দীর্ঘ সময়ে সেই প্রকল্প আর আলোর মুখ দেখেনি। এখন এই রেলস্টেশন উদ্বোধন নাইজার, বেনিন, বুরকিনা ফাসো এবং আইভরি কোস্টের মাঝে রেললাইন নির্মাণের সূচনা করবে। নিয়ামির টুইটার ব্যবহারকারী তানুসো এই রেলস্টেশনের একটি ছবি পোস্ট করেছে :

 

সেনেগাল থেকে ফ্রান্স: ভিসার আগে চাই সম্মান

আমি সিদ্ধান্ত নিয়েছি, ফ্রান্সের যাওয়ার ভিসা প্রত্যাখান করবো [...] সেনেগালের হাজার হাজার নাগরিক যাদের সম্মান প্রাপ্য তাদের জন্যই আমি এটা ত্যাগ করবো। ফরাসি দুতাবাস প্রায়ই তাদের ভিসা না দিয়ে এই সম্মান থেকে বঞ্চিত করে।

সেনেগালের রাজধানী ডাকারের ফরাসি দুতাবাসের কাছে লেখা বোসো ড্রামির খোলা চিঠিতে এই শব্দগুলোই লেখা হয়েছে। বোসো ড্রামি সেনেগালের একজন পরামর্শক। তিনি লন্ডন স্কুল অব ইকোনোমিক্স থেকে স্নাতক পাস করেছেন। তিনি প্যারিস থেকে একটি সাহিত্য পুরস্কার লাভ করেছেন। সম্প্রতি ফরাসি ভিসার জন্য আবেদন করার সময়ে তিনি এই অসম্মানের মুখোমুখি হন। অনেক আফ্রিকান নাগরিক একই ধরনের অভিজ্ঞতার কথা তার এই খোলা চিঠির প্রতিক্রিয়ায় [সব লিংক ফরাসিতে] অনলাইনে তুলে ধরেছেন ।

২০১২ সালে ডিআরসি'র দ্বন্দ্বের মানচিত্র

ডিআরসিতে মারামারি সংকটের গ্রুপ মানচিত্র, এপ্রিল-নভেম্বর ২০১২ এর মধ্যে

ডিআরসি’র কিভু এলাকায় ২০১২ সালে ক্রাইসিস গ্রুপ দ্বন্দ্বের একটা মিথস্ক্রিয় মানচিত্র তৈরি করেছে [ফরাসি]।

নিরক্ষীয়-গিনির স্বৈরশাসকের নামে বেনিন বিশ্ববিদ্যালয়ের নামকরণ

এখন আপনি তাকে ড. তিওডর ওবিয়াঙ ঙ্গুয়েমা ম্বাসোগো ডাকতে পারেন।

মাইগ্যাব.টিভি রিপোর্ট করেছে যে [ফরাসী ভাষায়] ইউনিভার্সিতে ইন্তারন্যাসিওনাল দু বেনা (বেনিন বিশ্ববিদ্যালয়) ইউপিআইবি-কে নিরক্ষীয়-গিনির স্বৈরশাসকের নাম অনুসারে এখন তিওডর ওবিয়াঙ ঙ্গুয়েমা ম্বাসোগো বিশ্ববিদ্যালয় বলা হবে। তিওডর ওবিয়াঙ ঙ্গুয়েমা ম্বাসোগো বেনিনের অনেক স্কুলের পৃষ্ঠপোষক  [ফরাসী ভাষায়] এবং অভিষেক অনুষ্ঠানে বিশ্ববিদ্যালয়টি থেকে একটি অনারিস কসা (পরীক্ষা ছাড়া এবং সম্মানসূচক) ডক্টরেট ডিগ্রি লাভ করেছেন।

ফুটবল খেলোয়াড়রা ইউরোপীয় অনুর্ধ্ব -২১ চ্যাম্পিয়নশীপ ইজরায়েলে আয়োজনের প্রতিবাদ করছে

ফিফার সভাপতি জোসেফ এস.ব্লাটারকে উদ্দেশ্য করে খেলোয়াড়দের লেখা একটি চিঠি পামবাজুকা.অর্গ প্রকাশ করেছে [ফরাসী ভাষায়]:

ষাট জন পেশাদার ফুটবল খেলোয়াড়, যাদের বেশীরভাগই মূলত আফ্রিকার, তারা ইউরোপীয় অনুর্ধ্ব-চ্যাম্পিয়নশীপ ( যা কিনা৫-১৮ জুন, ২০১৩ তারিখে অনুষ্ঠিত হবে) ইজরায়েলে আয়োজনের সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে ইউয়েফার কাছে একটি চিঠি লিখেছে। তার যুক্তি প্রদান করে যে, এই কাজের মধ্যে দিয়ে ইউরোপ সম্প্রতি ইজরায়েল কর্তৃক গাজায় বোমা বর্ষণের বিষয়ে চোখ ফিরিয়ে নিলো।