বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

পাসওয়ার্ড হারিয়ে ফেলেছেন? চিন্তার কিছু নেই, ক্রেমলিনের কাছে আছে

Want to become a Russian blogger officially? The government is happy to begin by receiving your login and password. Images mixed by author.

রাশিয়ায় ব্লগার হিসেবে সরকারি স্বীকৃতি পেতে চান? সরকারকে আপনার লগিন তথ্য এবং পাসওয়ার্ড দিন, স্বীকৃতি পেয়ে যাবেন। ছবি লেখক।

আপনি যদি রাশিয়ায় ব্লগার হিসেবে সরকারি স্বীকৃতি পান, তবে খুব শিগগিরই আপনার নাম দেশটির “ব্লগার নিবন্ধন” তালিকায় উঠবে। গত শুক্রবারে ব্লগার নিবন্ধন প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। ইতোমধ্যে কয়েকজনের নাম তালিকায় এসেছে। যদিও সরকারের তথ্য বিষয়ক সংস্থা রসকমনাডজর জানায়নি, কতোজন ব্লগারকে এই তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করবে।

রসকমনাডজর ব্লগারদের কাছে ব্লগের নাম এবং ওয়েবসাইট চাওয়ার পাশাপাশি তাদের লগিন তথ্য এবং পাসওয়ার্ড চেয়েছে।

সাম্প্রতিক এক সাক্ষাৎকারে রসকমনাডজর-এর পরিচালক আলেক্সান্দার জিহারভ যুক্তি দেখিয়েছেন, এই নিবন্ধনের মাধ্যমে ব্লগাররা তাদের ব্লগিং কার্যক্রমের আইনি স্বীকৃতি পাবেন। আর এতে করে বিজ্ঞাপনী সংস্থাগুলো তাদের সাথে কাজ করতে আগ্রহী হবেন। তবে কারা কারা নিবন্ধনের জন্য উপযুক্ত তা জানার জন্য রাশিয়ান সরকার এবং আলেক্সান্দার জিহারভ রসকমনাডজর-এর সাথে সরাসরি যোগাযোগ করতে ব্লগারদের অনুরোধ করেছেন।

তবে সব ব্লগার নিবন্ধনের জন্য বিবেচিত হবেন না। যেসব ব্লগে প্রতিদিন তিন হাজার বারের বেশি দেখা হয়, তারাই ব্লগার হিসেবে সরকারি স্বীকৃতি পাবেন। এই ধরনের স্বীকৃতির মাধ্যমে সরকার নতুন ধরনের ব্যবস্থা চালু করার আশা করছে।

জুলাইয়ের ৩০ তারিখে টিজার্নালে রসকমনাডজর-এর ব্লগার নিবন্ধন প্রক্রিয়ার বিস্তারিত তুলে ধরা হয়েছে। ব্লগে প্রতিদিনের পাঠক সংখ্যার পরিমাণ বের করতে সরকার এখনো টুলগুলো নিয়ে কাজ করছে। তাছাড়া ফেসবুকের মতো যেসব সামাজিক মাধ্যম ব্যবহারকারীর তথ্য প্রকাশ করে না, সেসব ক্ষেত্রে কি করা হবে, সেগুলোর প্রক্রিয়াও ঠিক করছে। আর এই প্রক্রিয়াটি সহজ করতে, পাঠকদের সংখ্যা এবং কার্যক্রম দেখতে ব্লগারদের কাছ থেকে লগিন তথ্য এবং পাসওয়ার্ড চেয়েছে।

সরকারের ওপর আস্থা রেখে কতোজন রাশিয়ান তাদের সামাজিক মাধ্যমের পাসওয়ার্ড দিবেন, তা এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি। তবে নিবন্ধন প্রক্রিয়া শুরু হওয়ার একদিনের মধ্যে ১৩০ জনের মতো ব্লগার আবেদন করেছেন বলে জানা গেছে।

তবে এটা বলার অপেক্ষা রাখে না যে, নতুন এই নীতির অপব্যবহারের মাধ্যমে সরকার ব্লগারদের গোপনীয় তথ্য এবং কার্যক্রমের প্রতি নজরদারি করতে পারে।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .