বন্ধ করুন

গ্লোবাল ভয়েসেসকে শক্তিশালী করতে আমাদের সহায়তা করুন

আমরা ১৬৭টি দেশের উপর রিপোর্ট করি। আমরা ৩৫টি ভাষায় অনুবাদ করি। আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস।

প্রায় ৮০০ এর বেশী গ্লোবাল ভয়েসেস এর লেখক একসাথে কাজ করছে আপনার কাছে অজানা সব গল্প তুলে ধরতে। কিন্তু আমাদের পক্ষে একা সব করা কঠিন। আমাদের অনেকেই স্বেচ্ছাসেবক হলেও আমাদের সম্পাদক, প্রযুক্তি এবং অ্যাডভোকেসী প্রকল্প ও সামাজিক অনুষ্ঠানের ব্যয়ভারের মেটানোর জন্যে আপনাদের সাহায্য প্রয়োজন।

আমাদের সহায়তা করুন এখানে ক্লিক করে: »
GlobalVoices পাওয়া যাবে আরও জানুন »

ইজরায়েলী নেটনাগরিকরা রমনি’র পরাজয় উদযাপন করছে

ইজরায়েলী নেটনাগরিকরা ঘনিষ্ঠভাবে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নির্বাচন অনুসরণ করেছে। তাদের অনেকে নির্বাচনী প্রার্থীদের মধ্যে কে ২৭০ ইলেক্টোরাল ভোটের দরজা অতিক্রম করছে দেখার জন্যে ভোর পর্যন্ত জেগে থেকেছে। ইজরায়েলী সামাজিক মিডিয়া এবং ব্লগোস্ফিয়ারে জনগণকে বামভাবাপন্ন মনে হয়েছে। আর তাই অধিকাংশ আশা করেছে যেন ওবামা পুনঃনির্বাচিত হয়। উদার ইজরায়েলিরা সাধারণভাবে শান্তি প্রক্রিয়া এবং ইজরায়েলের ভিতরে মানবাধিকার লংঘন বিষয়ে ওবামার নিষ্ক্রিয়তায় হতাশ, তবে রমনিকে দু’টি বিকল্পের মধ্যে নিকৃষ্ট বিবেচনা করা হয়েছে। নেতানিয়াহুর পরোক্ষ রমনি সমর্থন এর পাশাপাশি নারী অধিকার, সমকামী অধিকার এবং সামাজিক সমতা বিষয়ে রমনি’র রক্ষণশীল অবস্থান তাকে ইজরায়েলী নেটনাগরিকদের মধ্যে যথেষ্ট অ-জনপ্রিয় করেছিল।

ইজরায়েলী নেটনাগরিকরা ওবামার বিজয়ে তীব্র প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছে মূলতঃ ইজরায়েলী রাজনীতির প্রেক্ষাপটে, নেতানিয়াহু এবং রমনি’র উদার অর্থ যোগানদাতা এবং  নেতানিয়াহুপন্থী  বিনামূল্যের দৈনিক ইজরায়েল হায়োম (আজকের ইজরায়েল)-এর মালিক ধনকুবের শেলডন আডেলসনের আঘাতের কারণে।

বামপন্থী ব্লগার কার্ট টাচোলস্কি তার ফেসবুকে [হিব্রু] পোস্ট করেছেন:

הרשו לי לנבא את הכותרת של ישראל היום מחר: במירוץ לנשיאות ארצות הברית הגיע רומני למקום השני, אובמה הגיע למקום הלפני אחרון!

আমাকে ইজরায়েল হায়োমের আগামীকালের শিরোনামটি ভবিষ্যদ্বাণী করতে দিন: মার্কিন যুক্তরাস্ট্রের রাষ্ট্রপতি প্রতিদ্বন্দ্বিতায় রমনি দ্বিতীয় হয়েছে, আর ওবামা হয়েছেন শেষজনের আগের জন!

এই হাস্যরসাত্মক ভবিষ্যদ্বাণী সত্য না হলেও দৈনিকটি ওবামার বিজয়ের পর “মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র সমাজতন্ত্র পছন্দ করেছে” শিরোনামে একটি উপসম্পাদকীয় প্রকাশ করেছে

আসাফস্কি লেভি ফেসবুকে আডেলসনের এই ছবিটি  পোস্ট করেছেন:

নারীবাদী ব্লগার এইচ বি হফম্যান টুইটারে ইজরায়েলীদের মধ্যেকার সাধারণ পরিবেশের বর্ণনা দিয়েছেন:

הפיד שטוף בשמחה לאיד וקריאות לאובמה להיכנס בנתניהו בכל הכוח, ואני רוצה להגיד שזה ממש לא יפה, שלא חיכיתם לי כדי שאוכל להצטרף. אובמה, כנס בו

@ভ্যান্ডারসিস্টার: আমার প্রতিক্রিয়াটি পরের দুর্দশায় আনন্দে এবং ওবামার প্রতি নেতানিয়াহুকে শক্ত আঘাত দেয়ার আহবানে পরিপূর্ণ। আর আমি বলতে চাই আসলে এটা ঠিক হলো না। আমি যাতে যোগ দিতে পারি সে জন্যে আপনি অপেক্ষা করেননি, এটা ঠিক হয়নি। শুনুন ওবামা, আঘাত করুন ওকে।

সাংবাদিক এবং সঙ্গীতশিল্পী ইউভাল বেন এমি ফেসবুকে পোস্ট করেছে:

לשלדון אדלסון נשפכו מאה מליון דולר לג'ורה. רק העובדה שזה גרושים בשבילו פוגמת לי בעונג השמחה לאיד.

শেলডন আডেলসন মাত্র ১০ কোটি ডলার জলে ঢেলেছেন। বাস্তবে তার জন্যে এর দুর্বল পরিবর্তন আমার পরের দুর্দশা দেখার আনন্দ নষ্ট করেছে মাত্র।

উরিয়েল দাস্কাল নেতানিয়াহুর রমনি সমর্থনের জুয়া সম্পর্কে টুইট করেছেন:

איך ששלדון אדלסון, שעוסק בהימורים למחייה, וביבי, שעוסק כל היום בהימורים על החיים שלנו, נכשלו כל כך בגדול בהימור שלהם?

@ওদাস্কাল: কিভাবে জীবিকার জন্যে জুয়া খেলা [ক্যাসিনো বানিয়ে ভাগ্য গড়া] শেলডন আডেলসন এবং সারাক্ষণ আমাদের জীবন নিয়ে জুয়া খেলা বিবি [নেতানিয়াহু] এতো শোচনীয়ভাবে তাদের বাজীতে হেরে গেলেন?

ইজরায়েলী নেটাগরিকরা একে নেতানিয়াহুর পরাজয় বিবেচনা করে আনন্দ করেছে:

আয়াল ব্রেভের তৈরী করা এই ছবিটি ফেসবুকে ব্যাপকভাবে ভাগাভগি হয়েছে:

“বেঞ্জামিন, খবর কী? বলুন তো, আপনি যে এখানে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে হস্তক্ষেপ করে প্রভাবিত করার চেষ্টা করেছিলেন, সেটা কী মনে করতে পারেন?” নেতানিয়াহু: ” হ্যাঁ। (কিন্তু) কেন?” ওবামা: “(না) কোন কারণ ছাড়াই”

ইজরায়েলী বামপন্থী এক্টিভিস্ট জন ব্রাউন ছবিটি  এই ছবিটি পোস্ট করেছেন:

রমনি’র উপর নেতানিয়াহুর ভুল বাজি নিয়ে মন্তব্য করতে গিয়ে ইজরায়েলী মেমেশিল্পী আমির শিবি এই ছবিটি তৈরি করেছেন:

নেতানিয়াহু: “আমার সব টাকা রমনির জন্যে বাজি ধরুন”. “আপনি কী (এটা) জানেন? আমার অন্তর্বাস এবং ইজরায়েলও বাজি” “বাজেয়াপ্ত” এবং “বিক্রয়ের জন্যে” লেখা একটি বাড়ির পাশে (দাঁড়ানো) ওবামা: “আপনি কিছু বিষয় ভুলে যাচ্ছেন না তো?”

আসন্ন ইজরায়েলী নির্বাচনে নেতানিয়াহুর পরাজয় হবে – কিছু কিছু ইজরায়েলীর এই আশাকে কণ্ঠ দিতে শাচার বি. কোটানি এই ব্যাপকভাবে ভাগাভাগি করা ছবিটি তৈরি করেছেন:

এই পোস্টে মন্তব্য বন্ধ করা হয়েছে।

বিশ্বের অঞ্চলসমূহ

দেশ

ভাষা

বিশেষ টপিক

লেখাটির সাথে আছে